1. admin@avasmultimedia.com : Kaji Asad Bin Romjan : Kaji Asad Bin Romjan
সালাতে রফউল ইয়াদাইন বা দু হাত উত্তোলন কখন কিভাবে করতে হয় এবং এ সম্পর্কে ১০টি হাদিস: | Avas Multimedia সালাতে রফউল ইয়াদাইন বা দু হাত উত্তোলন কখন কিভাবে করতে হয় এবং এ সম্পর্কে ১০টি হাদিস: | Avas Multimedia
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১১:০৩ অপরাহ্ন

সালাতে রফউল ইয়াদাইন বা দু হাত উত্তোলন কখন কিভাবে করতে হয় এবং এ সম্পর্কে ১০টি হাদিস:

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : রবিবার, ১১ জুলাই, ২০২১
  • ১০ বার দেখেছে
সালাতে রফউল ইয়াদাইন বা দু হাত উত্তোলন কখন কিভাবে করতে হয় এবং এ সম্পর্কে ১০টি হাদিস:
* সহীহ বুখারির সালাত অধ্যায় সহ আরও বহু হাদিসে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নামাযের ৪টি স্থানে রাফউল ইয়াদাইন বা দু হাত তোলার কথা সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে। সেস্থানগুলো হল:
◈ ১. তাকবীরে তাহরীমার সময়
◈ ২. রুকুতে যাওয়ার সময়
◈ ৩. রুকু থেকে উঠে সোজা হয়ে দাঁড়াবার সময় এবং
◈ ৪. তৃতীয় রাকয়াতে দাঁড়িয়ে বুকে হাত বাঁধার সময় ।
যারা আমল করবে তারা সুন্নাহ বাস্তবায়ন করার কারণে সওয়াবের অধিকারী হবে। কেউ না আমল না করলেও তার নামায শুদ্ধ হবে কিন্তু সুন্নাহ বাস্তবায়নের সওয়াব থকে বঞ্চিত হবে।
উক্ত স্থানগুলোতে রফউল ইয়াদাইন বা দু হাত উত্তোলন প্রসঙ্গে নিচে ১০টি হাদিস পেশ করা হল:
▪ ১. আব্দুল্লাহ ইবনে উমর রা. হতে বর্ণিত যে, আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন সালাত শুরু করতেন, তখন উভয় হাত তার কাঁধ বরাবর উঠাতেন । আর যখন রুকুতে যাওয়ার জন্য তাকবীর বলতেন এবং যখন রুকু হতে মাথা উঠাতেন তখনও একইভাবে দু হাত উঠাতেন এবং ‘সামি আল্লাহু লিমান হামিদাহ রব্বানা ওয়া লাকাল হামদ’ বলতেন । কিন্তু সিজদার সময় এমন করতেন না।
[সহীহুল বুখারি, পর্ব: আযান, ১০/৮৩ অধ্যায়: স্বলাত শুরু করার সময় প্রথম তাকবীরের সাথে সাথে উভয় হাত উঠানো, হাদিস নং-৭৩৫ ।(তাও:পাব:)]
▪ ২. আব্দুল্লাহ ইবনে উমর রা. হতে বর্ণিত । তিনি বলেন, আমি আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে দেখেছি, তিনি যখন সালাতের জন্য দাঁড়াতেন তখন উভয় হাত কাঁধ বরাবর উঠাতেন এবং যখন তিনি রুকুর জন্য তাকবীর বলতেন তখনও এরকম করতেন । আবার যখন রুকু হতে মাথা উঠাতেন তখনও এরকম করতেন এবং সামি আল্লাহু লিমান হামিদাহ বলতেন । তবে সিজদাহর সময় এরকম করতেন না।
[সহীহুল বুখারি, পর্ব: আযান, ১০/৮৪ অধ্যায়: তাকবীরে তাহরীমা, রুকুতে যাওয়া এবং রুকু হতে উঠার সময় উভয় হাত উঠানো । হাদিস নং-৭৩৬ ।(তাও:পাব:)]
▪ ৩. আবু কিলাবাহ (রা.) হতে বর্ণিত । তিনি মালিক ইবনে হুওয়ায়রিস (রা.) কে দেখেছেন, তিনি যখন স্বলাত আদায় করতেন তখন তাকবীর বলতেন এবং তার দুহাত উঠাতেন আর যখন রুকু করার ইচ্ছা করতেন তখনও তার উভয় হাত উঠাতেন, আবার যখন রুকু হতে মাথা উঠাতেন তখনও তার উভয় হাত উঠাতেন এবং তিনি বর্ণনা করেন যে, আল্লাহর রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এরূপ করেছেন।
[সহীহুল বুখারি, পর্ব: আযান, ১০/৮৪ অধ্যায়: তাকবীরে তাহরীমা, রুকুতে যাওয়া এবং রুকু হতে উঠার সময় উভয় হাত উঠানো । হাদিস নং-৭৩৭ ।(তাও:পাব:)]
▪ ৪. আব্দুল্লাহ ইবনে উমর (রা.) হতে বর্ণিত । তিনি বলেন, আমি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে তাকবীর দিয়ে স্বলাত শুরু করতে দেখেছি, তিনি যখন তাকবীর বলতেন তখন তার উভয় হাত উঠাতেন এবং কাঁধ বরাবর করতেন । আর যখন রুকুর তাকবীর বলতেন তখনও এরকম করতেন । আবার যখন সামি আল্লাহু লিমান হামিদাহ বলতেন, তখনও এরকম করতেন এবং রব্বানা ওয়া লাকাল হামদ বলতেন । কিন্তু সিজদায় যেতে এরকম করতেন না । আর সেজদা হতে মাথা উঠানোর সময়ও এমনটি করতেন না ।
[সহীহুল বুখারি, পর্ব: আযান, ১০/৮৫ অধ্যায়: উভয় হাত কতটুকু উঠাবে । হাদিস নং-৭৩৮ ।(তাও:পাব:)]
▪ ৫. নাফি রাহ. হতে বর্ণিত যে, ইবনে উমর (রা.) যখন সালাত শুরু করতেন তখন তাকবীর বলতেন এবং দু’হাত উঠাতেন আর যখন রুকু করতেন তখনও দু’হাত উঠাতেন । অতঃপর যখন সামি আল্লাহু লিমান হামিদাহ বলতেন তখনও দু’হাত উঠাতেন এবং দু’রাকাত আদায়ের পর যখন দাঁড়াতেন তখনও দু’হাত উঠাতেন । এ সমস্ত আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হতে বর্ণিত বলে ইবনে উমর (রা.) বলেছেন। এ হাদিসটি হাম্মাদ ইবনে সালাম ইবনে উমর (রা.) সূত্রে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হতে বর্ণনা করেছেন ।
ইবনে তাহমান আইয়ুব ও মুসা ইবনে উকবাহ (রা.) হতে এ হাদিসটি সংক্ষেপে বর্ণনা করেছেন।
[সহীহুল বুখারি, পর্ব: আযান, ১০/৮৬ অধ্যায়: দু’রাকাআত আদায় করে দাঁড়াবার সময় দু’হাত উঠানো । হাদিস নং-৭৩৯ ।(তাও:পাব:)]
▪ ৬. সালিম এর পিতা ইবনে উমার রা. থেকে বর্ণিত যে, তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে দেখেছি, তিনি যখন সালাত আরম্ভ করতেন তখন উভয় হাত উঠাতেন। এমনকি তা একেবারে তার উভয় কান বরাবর হয়ে যেত। আর রুকু করার পূর্বে এবং যখন রুকু থেকে উঠতেন (তখনও অনুরূপভাবে হাত উঠাতেন)। কিন্তু উভয় সিজদার মাঝখানে তিনি হাত উঠাতেন না।
[সহীহ মুসলিম, পরিচ্ছেদ: তাকবীরে তাহরীমা, রুকু এবং রুকু থেকে উঠার পর উভয় হাত কাঁধ বরাবর উঠানো মুস্তাহাব; সিজদা থেকে উঠার পর এরূপ করতে হবে না। হাদিস নং-৭৪৭ ।(ই.ফা.বা)]
▪ ৭. ইবনে উমর রা. থেকে বর্ণিত যে, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন সালাতের জন্য দাঁড়াতেন তখন উভয় হাত উঠাতেন। এমনকি তা তার উভয় কাঁধ বরাবর হয়ে যেত। তারপর তাকবীর বলতেন। পরে যখন রুকু করার ইরাদা করতেন তখনও অনুরূপ করতেন। আবার রুকু থেকে যখন উঠতেন তখনও অনুরূপ করতেন। কিন্তু সিজদা থেকে তখন মাথা তুলতেন তখন এরূপ করতেন না।
[সহীহ মুসলিম, পরিচ্ছেদ: তাকবীরে তাহরীমা, রুকু এবং রুকু থেকে উঠার পর উভয় হাত কাঁধ বরাবর উঠানো মুস্তাহাব; সিজদা থেকে উঠার পর এরূপ করতে হবে না। হাদিস নং-৭৪৮ ।(ই.ফা.বা)]
▪ ৮. আবু কিলবো (রাহঃ) থেকে বর্ণিত যে, তিনি মালিক ইবনে হুয়াইরিস রা. কে দেখলেন, যখন সালাত আদায় করতে দাঁড়ালেন, তখন তাকবীর বলে উভয় হাত উঠালেন। আর যখন রুকু করার ইচ্ছা করলেন তখন উভয় হাত উঠালেন। আর রুকু থেকে যখন মাথা উঠালেন তখন আবার হাত উঠালেন এবং (পরে) বর্ণনা করলেন যে, রাসূলুল্লাহ (সাঃ) এরূপ করতেন।
[সহীহ মুসলিম, পরিচ্ছেদ: তাকবীরে তাহরীমা, রুকু এবং রুকু থেকে উঠার পর উভয় হাত কাঁধ বরাবর উঠানো মুস্তাহাব; সিজদা থেকে উঠার পর এরূপ করতে হবে না। হাদিস নং-৭৫০ ।(ই.ফা.বা)]
▪ ৯. মালিক ইবনে হুয়াইরিস রা. থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাকবীর (তাকবীরে তাহরীমা) বলে উভয় হাত কান বরাবর উঠাতেন। আর যখন রুকু করতেন তখনও কান বরাবর উভয় হাত উঠাতেন। আবার যখন রুকু থেকে মাথা তুলে ‘সামি আল্লাহু লিমান হামিদাহ’ বলতেন তখনও অনুরূপ করতেন।
[সহীহ মুসলিম, পরিচ্ছেদ: তাকবীরে তাহরীমা, রুকু এবং রুকু থেকে উঠার পর উভয় হাত কাঁধ বরাবর উঠানো মুস্তাহাব; সিজদা থেকে উঠার পর এরূপ করতে হবে না। হাদিস নং-৭৫১ ।(ই.ফা.বা)]
▪১০. ওয়াইল ইবনে হুজর রা. থেকে বর্ণিত। তিনি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে দেখেছেন যে, তিনি যখন সালাত শুরু করলেন তখন উভয় হাত উঠিয়ে তাকবীর বললেন।
রাবী হাম্মাম বলেন, তিনি উভয় হাত কান বরাবর উঠালেন। তারপর কাপড়ে (গায়ের চাদরে) ঢেকে নিলেন। তারপর তার ডানহাত বামহাতের উপর রাখলেন। তারপর রুকু করার সময় তার উভয় হাত কাপড় থেকে বের করলেন। পড়ে উভয় হাত উঠালেন এবং তাকবীর বলে রুকুতে গেলেন। যখন ‘সামি আল্লাহু লিমান হামিদাহ’ বললেন তখন উভয় হাত তুললেন। পরে উভয় হাতের মাঝখানে সিজদা করলেন।
[সহীহ মুসলিম, পরিচ্ছেদ: তাকবীরে তাহরীমার পর বুকের নিচে নাভির উপরে বাম হাতের উপরে ডান হাত রাখা এবং সিজদায় উভয় হাত মাটিতে কান বরাবর রাখা। হাদিস নং-৭৮১ ।(ই.ফা.বা)]
এ বিষয়ে আরও অনেক হাদিস পড়তে চলে যান এই লিংকে-
আল্লাহু আলাম
————————
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
দাঈ, জুবাইল, সৌদি আরব

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মাধ‌্যমগুলোতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর..

আজকের দিন-তারিখ

  • শুক্রবার (রাত ১১:০৩)
  • ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ২০শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি
  • ১৫ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
© সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত-২০২০-২০২১ ‍avasmultimedia.com
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD