1. admin@avasmultimedia.com : Kaji Asad Bin Romjan : Kaji Asad Bin Romjan
মসজিদের দেয়ালে ক্যালেন্ডার, মক্কা-মদিনার ছবি, বিভিন্ন দুআ ও জিকির সম্বলিত বোর্ড বা স্ট্যান্ড ইত্যাদি স্থাপনের বিধান - Avas Multimedia মসজিদের দেয়ালে ক্যালেন্ডার, মক্কা-মদিনার ছবি, বিভিন্ন দুআ ও জিকির সম্বলিত বোর্ড বা স্ট্যান্ড ইত্যাদি স্থাপনের বিধান - Avas Multimedia
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০৬:২৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গোশতের টুকরায়, গাছের পাতায়, মাছের গায়ে, রুটিতে, বাচ্চার শরীর ইত্যাদিতে আল্লাহর নাম: একটা ঘটনা প্রায় শোনা যায় যে, ইবলিস মুসা আলাইহিস সালাম-এর কাছে তওবা করতে চেয়েছিল। মুহররম মাসের ফজিলত ও করণীয় সম্পর্কে বর্ণিত ১৪টি সহিহ হাদিস অতিরিক্ত দামীও নয় আবার ছেঁড়া-ফাটাও নয় বরং মধ্যম মানের পোশাক পরা উচিৎ সুন্নতি পোশাক (পুরুষ-নারী) আশুরা তথা মুহররমের ১০ তারিখে রোযা রাখার ফযিলত কি? হুসাইন রা. এর শাহাদাত এবং আশুরার শোক পালন প্রসঙ্গে এক ঝলক ইবাদত শব্দের অর্থ ও ব্যাখ্যা কি? ব্যবসা, চাকুরী, সাংসারিক কাজ-কারবার ইত্যাদি দুনিয়াবি কাজে কি সওয়াব পাওয়া যায়? অনুমতি ছাড়া স্বামী-স্ত্রী একে অপরের অর্থ-সম্পদ খরচ করা রাতের বেলায় যে সকল সূরা ও আয়াত পড়ার ব্যাপারে হাদিস বর্ণিত হয়েছে

মসজিদের দেয়ালে ক্যালেন্ডার, মক্কা-মদিনার ছবি, বিভিন্ন দুআ ও জিকির সম্বলিত বোর্ড বা স্ট্যান্ড ইত্যাদি স্থাপনের বিধান

প্রতিবেদকের নাম:
  • আপডেটের সময়: বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫৯ বার
মসজিদের দেয়ালে ক্যালেন্ডার, মক্কা-মদিনার ছবি, বিভিন্ন দুআ ও জিকির সম্বলিত বোর্ড বা স্ট্যান্ড ইত্যাদি স্থাপনের বিধান
প্রশ্ন: মসজিদের দেয়ালে ক্যালেন্ডারে মক্কার ছবি বা মানুষের ছবি থাকলে কি কোনও সমস্যা হবে কি?
উত্তর:
মসজিদে কেবলার দিকে ক্যালেন্ডার, কাবা শরিফ বা মসজিদে নববীর ছবি, কুরআনের আয়াতের ক্যালিগ্রাফি, কুরআনের বিভিন্ন সূরা, কালিমা, দুআ ইত্যাদি লেখা কারুকার্য খচিত ফলক, জিকির-আজকার সম্বলিত স্ট্যান্ড/পোস্টার ইত্যাদি রাখা ঠিক নয়। কেননা এতে মুসল্লিদের মনোযোগ বিঘ্নিত হতে পারে। সালাত আদায় করার সময় বেখেয়ালে এসব আকর্ষণীয় জিনিসের দিকে দৃষ্টি চলে যেতে পারে। উসমান বিন তালহা হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কাবা ঘরে প্রবেশের পরে আমাকে বললে,
إِنِّي نَسِيتُ أَنْ آمُرَكَ أَنْ تُخَمِّرَ الْقَرْنَيْنِ فَإِنَّهُ لَيْسَ يَنْبَغِي أَنْ يَكُونَ فِي الْبَيْتِ شَيْءٌ يَشْغَلُ الْمُصَلِّيَ.
“আমি তোমাকে (কাবা ঘরের দেয়ালে টাঙ্গানো) শিং দুইটি ঢেকে রাখার আদেশ দিতে ভুলে গেছি। কারণ আল্লাহর ঘরে এমন জিনিস থাকা সমীচীন নয় যা সালাত আদায়কারীকে অন্যমনস্ক করে দেয়।” (সহিহ আবু দাউদ, হা/২০৩০)
উল্লেখ্য যে, কাবা ঘরের দেয়ালে ইসমাইল এর পরিবর্তে জবেহ কৃত দুম্বার দুটি শিং ঝুলিয়ে রাখা হয়েছিলো।
হাদিসে আরও এসেছে,
عَنْ أَنَسِ بْنِ مَالِكٍ قَالَ كَانَ قِرَامٌ لِعَائِشَةَ سَتَرَتْ بِهِ جَانِبَ بَيْتِهَا فَقَالَ النَّبِيُّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَمِيطِي عَنَّا قِرَامَكِ هَذَا فَإِنَّهُ لاَ تَزَالُ تَصَاوِيرُهُ تَعْرِضُ فِي صَلاَتِي
আনাস রা. বলেন, আয়েশা রা. এর একটি চাদর ছিল যা দ্বারা তিনি তাঁর ঘরের এক পার্শ্ব পর্দা করে রেখেছিলেন। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁকে বললেন, ‘আমার নিকট থেকে চাদর সরাও। কারণ সালাতে এর ছবিগুলি সর্বদা আমার সামনে ভেসে উঠছে।” [সহিহ বুখারি ২/৮৮১]
প্রয়োজনীয় ও শিক্ষণীয় কিছু ঝুলিয়ে রাখার প্রয়োজন হলে মসজিদের পেছনের দেয়ালে বা বাইরের বোর্ডে রাখা যেতে পারে।
শাইখ বিন বায রাহ. বলেন,
لا بأس بتعليق هذه اللوحات التي تحتوي على أذكار ما بعد الصلاة ، ولكن ينبغي أن لا تعلق في جهة القبلة حتى لا تشوش على المصلين أو تشغلهم وهم في الصلاة
“সালাতের পরে পঠিতব্য দুআ ও জিকির সম্বলিত বোর্ডগুলো ঝুলিয়ে রাখায় সমস্যা নেই। তবে তবে সেগুলো কিবলার দিকে ঝুলানো সমীচীন নয়-যেন মুসল্লিদেরকে বা সালাত রত ব্যক্তিদের ডিস্টার্বের কারণ না হয়।” (শাইখে অফিসিয়াল ওয়েব সাইট)
আর মানুষ, পশুপাখি, জীবজন্তু বা কোন প্রাণীর ছবি মসজিদের সামনে, পেছনে বা অন্য কোথাও-এমনকি বাড়ির মধ্যেও ঝুলিয়ে রাখা জায়েজ নেই। কেননা, ইসলামের দৃষ্টিতে একান্ত প্রয়োজন ছাড়া প্রাণীর ছবি তোলা কঠোরভাবে নিষিদ্ধ এবং আখিরাতে কঠিন শাস্তির কারণ।
আল্লাহ হেফাজত করুন। আমীন।
আল্লাহু আলাম।
– আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল

এই পোষ্টটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও পোস্ট...

আজকের দিন-তারিখ

  • বুধবার (সকাল ৬:২৪)
  • ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ১২ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি
  • ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)

© সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত avasmultimedia.com ২০১৯-২০২২ ‍

ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD